পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি ভিসা চেক

0

আপনি কি সৌদি যেতে ভিসা আবেদন সংগ্রহ করেছেন। আপনার ভিসা আবেদন স্ট্যাটাস জানতে চান? চেক করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। আপনাদের সঙ্গে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

আপনি যদি এই সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আজকের এ কনটেন্টি আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আজকের এই কনটেন্ট থেকে আপনারা শিক্ষা গ্রহণ করে নিজে নিজেই অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজে সৌদি ভিসা চেক করতে পারবেন। চলুন এই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি ভিসা চেক

বর্তমান সময়ে অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে যে কোনো দেশের ভিসা চেক করা অত্যন্ত সহজ। আপনারা খুব সহজেই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে  সৌদি ভিসা চেক করে নিতে পারবেন। সৌদি আরবের ভিসা চেক করতে হলে প্রথমত আপনাকে যে সকল কাজগুলো করতে হবে তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • প্রথমে একটি ব্রাউজার ওপেন করতে হবে।  তারপর  সৌদি আরবের ভিসা চেক করার জন্য যে ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে যাবেন। ওয়েবসাইট লিংকঃ- https://visa.mofa.gov.sa/VisaPerson/GetApplicantData
  •  ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পরে পাসপোর্ট নাম্বার, ন্যাশনালিটি, দেবেন তারপরে ভিসা ইসু অথরিটি হিসেবে ঢাকা সিলেক্ট করবেন।
  •  তারপরে একটি ক্যাপচার কোড দেখতে পারবেন। সেটা দেখে দেখে সঠিকভাবে বসিয়ে সার্চ করবেন।
সৌদি ভিসা চেক
সৌদি ভিসা চেক
  •  তারপরে আপনাকে একটি নতুন ট্যাবে নিয়ে যাবে।
  •  সেখানে আপনারা আপনাদের ভিসা আবেদনের  তথ্য দেখতে পাবেন। যদি আপনার ভিশন ইস্যু হয়ে যায় বা অ্যাপ্রভ হয় তাহলে আপনি বিশ্বাস সকল তথ্য দেখতে পারবেন।
  • যেমন, ভিসা নাম্বার, এপ্লিকেশন নাম্বার, ভিসা স্পন্সর বা কোম্পানি, ও আপনার অন্যান্য তথ্য। এভাবে আপনারা  অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজেই নিজে নিজেই ভিসা চেক করে নিতে পারেন।

সৌদি আরব কাজের ভিসা ২০২৩

 ভিসা নাম্বার দিয়ে সৌদি ভিসা চেক করার নিয়ম

 অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার বা ভিসা নাম্বার দিয়ে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে তাদের ওয়েবসাইটে ঢুকে খুব সহজেই আপনি আপনার ভিসা চেক করে নিতে পারেন।

  • ভিসা চেক করার জন্য প্রথমত আপনাকে এ ওয়েবসাইটে  https://visa.mofa.gov.sa/Home/Index   প্রবেশ করতে হবে।
  •  প্রবেশ করার পরে আপনারা কুয়েরি অপশনে ক্লিক করবেন।
  •  অতঃপর আপনার সামনে  চারটি অপশন আসবে সেখান থেকে এপ্লিকেশন নাম্বার অথবা ভিসা ডকুমেন্টস নাম্বার সিলেক্ট করবেন।
  •  সিলেক্ট করার পরে আপনারা প্রথম অপশনে অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার দেবেন।
  •  পরের বক্সে ভিসা আবেদনের স্লিপের নাম্বার দেবেন।
  •  তারপর পাসপোর্ট নাম্বার দেবেন।
  •  অতঃপর সর্বশেষে যেই ক্যাপচার করতে পারছেন সঠিকভাবে তা লিখে  সার্চ অপশনে ক্লিক করবেন।

 এভাবে আপনারা খুব সহজেই ভিসা চেক করতে পারবেন। জেনে রাখা ভালো এই ওয়েবসাইটে সকল লেখাগুলো আরবীতে থাকবে। আপনি যদি আরবিতে দক্ষ না হয়ে থাকেন তবে আপনি ট্রান্সলেশন এর সাহায্য নিয়ে ইংরেজি করে কাজ করতে পারেন।

 সৌদি ভিসা বাংলায় অনুবাদ  করার নিয়ম

বর্তমান সময়ে অনলাইনে সব কিছু করাই অত্যন্ত সহজ। আমরা অনলাইনে সাহায্য নিয়ে গুগল ট্রান্সলেটে গিয়ে সৌদি ভাষাগুলো খুব সহজেই ইংরেজিতে ট্রান্সলেশন করে নিতে পারব। ট্রান্সলেশন করতে হলে প্রথমত আপনাকে আরবি লিখা গুলো কপি করে গুগল ট্রান্সলেট এগিয়ে কপি লেখাগুলো পেস্ট করতে হবে।

সৌদি ভিসা চেক
সৌদি ভিসা চেক

 পাশেরটাতে ইংলিশ ভাষা চয়েজ দিতে হবে। তাহলে দেখবেন  আরবি ভাষাটি ইংরেজি হয়ে গেছে। যদি ইংরেজির স্থানে বাংলা সিলেক্ট করেন তবে বাংলা ট্রান্সলেট হবে। এভাবেই আপনারা সৌদি ভিসা চেক বাংলায় অনুবাদ করে দেখে নিতে পারেন। আপনাদের সুবিধার জন্য নিচে ট্রান্সলেশন করার ছবি দেওয়া হল।

 নতুন নিয়মে সৌদি ভিসা চেক

বর্তমানে পূর্বের তুলনায় আরো দ্রুত সময়ে সৌদি ভিসা চেক করে নিতে পারবেন যে  কেউ। সৌদি ভিসা চেক করতে হলে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। ওয়েবসাইট লিংক  এখান থেকে আপনারা উপরে উল্লেখিত তথ্য গুলোর মত করে খুব সহজেই ভিসা চেক করে নিতে পারেন।

কিভাবে বুঝবো ভিসাটি বৈধ

আমরা যখন ভিসাটি চেক  করব তখন আমরা কোম্পানির নাম এবং অন্যান্য তথ্য দেখতে পাবো। যদি ভিসাটি বৈধ না হয় তবে আমরা কোন কিছুই দেখতে পাবো না। এ থেকে আমরা বুঝতে পারবো আমাদের বিষয়টি বৈধ না অবৈধ।

বৈধ হলে আমরা কোন কোম্পানিতে কাজ করব। কোন সেক্টরে কাজ করব, ইত্যাদি সম্পর্কে। আরো কোম্পানি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ও জানতে পারবো। মূলত এভাবেই আমরা বুঝতে পারবো আমাদের ভিসা বৈধ নাকি অবৈধ।

কোন কাজে নিয়োগ করা হয়েছে কিভাবে দেখব

 ভিসা চেক করার পরে আপনি সকল আরবি অক্ষর গুলো ইংরেজি অথবা বাংলাতে ট্রান্সলেশন করে নিয়ে আপনি সকল তথ্য জানতে পারবেন। সেখানে আপনারা দেখতে পারবেন আপনি সেখানে গিয়ে কোন কাজ করবেন, কোথায় কাজ করবেন, কোন কোম্পানিতে কাজ করবেন ইত্যাদি।

আপনি যে এজেন্সি বা যেই দালালের মাধ্যমে যাবেন তারা যে সকল তথ্য দিয়েছিল তা সঠিক আছে কিনা তা আপনারা এভাবেই বুঝতে পারবেন এবং দেখতে পারবেন। এ সকাল তথ্যগুলো জানা থাকলে আপনারা ধোকাবাজদের হাত থেকে বেঁচে যাবেন।

FQA

 অনলাইনে সৌদি ভিসা চেক  করব কিভাবে

 অনলাইনের মাধ্যমে সৌদি ভিসা চেক করা অত্যন্ত সহজ। আপনারা সৌদির ভিসা চেক করার জন্য সৌদির  ওয়েব সাইটে প্রবেশ করবেন। তারপর আপনার পাসপোর্ট নাম্বার, ন্যাশনালিটি, ভিসা টাইপ, ভিসা ইসু অথরিটি, ক্যাপচার কোড দিয়ে স্যার সেক্রেট করবেন। ওয়েবসাইট এর লিংক আমরা ইতিমধ্যে উল্লেখ করেছি। এভাবে আপনারা ভিসা চেক করতে পারবেন।

সৌদি  ভিসায় কোম্পানি এবং কাজ কিভাবে চেক করব

উত্তরঃ-  আপনি আপনার ভিসা চেক করার পর স্পন্সর এবং অকুপেশন  এই দুটি অপশন দেখতে পারবেন। এই আরবি লেখা দুটিকে আপনারা  গুগল ট্রান্সলেটের সাহায্যে বাংলা অথবা ইংরেজি করে নিবেন। তাহলে আপনারা বুঝতে পারবেন আপনার কোম্পানি এবং পেশা সম্পর্কে।

 সৌদি আরবের ভিসা চেক করব কিভাবে

  উত্তরঃ- সৌদি আরবের ভিসা আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার কাছে থাকা পাসপোর্ট নাম্বার এবং ভিসা নাম্বার ও অন্যান্য তথ্য দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে চেক করে নিতে পারেন। চেক করার জন্য অবশ্যই আপনাকে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।  সঠিকভাবে তথ্যগুলো দিয়ে আপনি আপনার ভিসা চেক করে নিতে পারেন।

 লেখক এর কিছু কথা 

 আমাদের সকলের উচিত যে কোন দেশে যাবার পূর্বে আমাদের  ভিসাটি চেক করে নেওয়া। কোন কারণে যদি আমাদের ভিসা অবৈধ হয় তবে আমরা অনলাইনের মাধ্যমে তার চেক করতে পারবো না। আর আমরা যদি ভিসা চেক না করে বিদেশে যাওয়ার জন্য পাড়ি জমাই তাহলে আমরা বড় রকমের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারি।

অনলাইনের মাধ্যমে বর্তমান সময়ে সবকিছু করা অত্যন্ত সহজ। সুতরাং আমরা ইচ্ছে করলে খুব সহজে আমাদের ভিসা সংক্রান্ত সকল তথ্য দেখে নিতে পারি। এ থেকে আমরা সর্তকতা অবলম্বন করতে পারি এবং কোনরকম সমস্যার সম্মুখীন যেন না হতে হয় তা থেকে সাবধান হতে পারি।

আজকের এই কনটেন্টে আমরা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা  করেছি। আপনারা যদি সামান্য পরিমাণ ও উপকৃত হয়ে থাকেন আমাদের এই কনটেন্ট থেকে তাহলে আমরা ধন্য। এ সংক্রান্ত অন্য কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। ইনশাআল্লাহ আমরা আপনার মূল্যবান  প্রশ্নের উত্তর দিতে চেষ্টা করব।

Leave A Reply

Your email address will not be published.