অনলাইনে জিডি করার নিয়ম

0

 অনলাইনে জিডি করার নিয়ম সম্পর্কে আমরা অনেকে জানি না। গুরুত্বপূর্ণ কোন কিছু হারিয়ে গেলে এছাড়াও কোনো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, পাসপোর্ট, পরিচয়পত্র, চেকবই বা গুরুত্বপূর্ণ দলিল হারানো ইত্যাদি। তখন আমাদের জিডি করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়ে কিন্তু কিভাবে করব করার নিয়ম সম্পর্কে আমাদের জানা থাকেনা।

বিভিন্ন কারণে থানায় সাধারণ ডায়েরি বা জিডি করতে হয়। অনেক সময় থানায় জিডি করতে হয়রানির স্বীকারও হতে হয়। এখন থেকে কোনো সমস্যা ছাড়াই বাসায় বসে মোবাইল দিয়ে বা কম্পিউটার দিয়ে জিডি করতে পারবেন। তবে অনলাইনে, শুধু হারানো এবং প্রাপ্তি সংক্রান্ত জিডি করতে পারবেন।

অনেকের জানা থাকলেও কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই কিভাবে জিডি করতে পারবেন সেই নিয়ম অনেকের জানা নাই আজকে  এই আর্টিকেলে অনলাইন জিডি করার নিয়ম সম্পর্কে জানানোর চেষ্টা করব আপনাদেরকে। দয়া করে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

অনলাইনে জিডি করার নিয়ম

ধাপঃ ০১

 প্রথমে প্লে স্টোরে গিয়ে ONLINE GD অফিসিয়াল এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করুন।

 অথবা এই লিংকে প্রবেশ করে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারেন। ইনস্টল করা হয়ে গেলে অ্যাপটি ওপেন করে প্রথমে  প্রবেশ বাটনে ক্লিক করুন/ অথবা নিচের ছবি ফলো করুন।

1

 

 

ধাপঃ ০২

আপনার জাতীয়পরিচয়পত্র নম্বর ও জন্ম তারিখ লিখুন।

পরবর্তীতে পরিচয়পএ যাচাই বাটনে ক্লিক করুন।

2

ধাপঃ ০৩ 

 আপনার দেওয়া তথ্য যাচাই বা সঠিক হয়ে থাকলে পরবর্তীতে ক্লিক করুন।

3

ধাপঃ ০৪

আপনার লাইভ ছবি তুলুন, আপনার সচল থাকা এগারো ডিজিড একটি মোবাইল নাম্বার দিন। এবং আপনার নিজের ইচ্ছামতো আপনি পাসওয়ার্ড এবং নিশ্চিত পাসওয়ার্ড সেট করে একাউন্ট তৈরি করুন।

4

ধাপঃ ০৫

 প্রথমে আপনার জেলার নাম / পরবর্তীতে নিজ থানার নাম / পরে আপনার ইউনিয়ন বা ওয়ার্ডের নাম / তারপর আপনার গ্রামের নাম /  স্থানের বিবরণ/ পোস্ট কোড / পরবর্তীতে ক্লিক করুন

5

ধাপঃ ০৬

 আপনার স্বাক্ষর প্রদান করুন।

6

ধাপঃ ০৭

আপনার সচল মোবাইল নাম্বার দিন মোবাইল নাম্বার অপারেটর ও ইমেল (যদি থাকে)

 তবে ওটা অপশনাল ইমেইল না দিলেও হবে।আপানর পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে একটি কোড (ওটিপি) আপনার দেওয়া মোবাইল নম্বরে পাঠানো হবে। কোডটি (ওটিপি) যথাস্থানে সঠিকভাবে লিখুন।

7

ধাপঃ ০৮

 সর্বশেষ ড্যাশবোর্ড এসে অভিযোগের ধরন এবং আপনার কি হারিয়েছে অথবা কি খুজে পেয়েছেন তা নির্বাচন করুন এবং কোন জেলায় ও কোন থানায় জিডি করতে চান তা নির্বাচন করুন ঘটনার সময় ও স্থান লিখে “ পরবর্তী” ধাপ বাটনে ক্লিক করুন।

8

আপনার বর্তমান ঠিকানা ও ঘটনা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত লিখুন।
অভিযোগ সম্পর্কিত কোন ডকুমেন্ট থাকলে সেগুলো যুক্ত করুন। “সাবমিট” বাটনে ক্লিক করে জমা দিন অথবা এডিট বাটনে ক্লিক করে ফর্ম পূরনে কোন সমস্যা হলে তা সমাধান করুন।
আবেদন সম্পন্ন হলে পরবর্তীতে লগইন করে আপনি আপনার জিডিএর সর্বশেষ অবস্থা জানতে পারবেন।

 জিডির আবেদন করতে যা যা  প্রয়োজন

আপনি অনলাইনের মাধ্যমে জিডি করতে পারবেন খুব সহজে. এজন্য আপনাকে অনলাইনে জিডি করার নিয়ম জানতে হবে এবং প্রয়োজনীয় তিনটি ডকুমেন্টস লাগবে. আর এই ডকুমেন্টগুলো নিম্নে প্রদান করা হলো:

  • আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর
  • আপনার সচল মোবাইল নম্বর
  • আপনার জন্ম তারিখ

এই ডকুমেন্টগুলো থাকলে আপনি খুব সহজেই অনলাইনে জিডি করতে পারবেন

যেসব কারণে জিডি করতে পারবেন

জিডি হল একটি থানার চলমান চিত্ররূপ। বিভিন্ন কারণে জিডি করা হয়। থানায় মামলাযোগ্য নয় এমন ঘটনা ঘটলে, আবার কাউকে ভয়-ভীতি দেখানো হলে বা নিরাপত্তার অভাব বোধ করলে, কিংবা কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটনের আশংকা থাকলে জিডি করা যায়।
এছাড়াও কোনো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, পাসপোর্ট, পরিচয়পত্র, চেকবই বা গুরুত্বপূর্ণ দলিল হারানো; বখাটে, মাদকসেবী বা অপরাধীদের আড্ডা-সংক্রান্ত তথ্য; জনশৃঙ্খলা বিঘ্নিত হতে পারে এমন অবৈধ সমাবেশ; গৃহকর্মী, দারোয়ান, নৈশপ্রহরী নিয়োগ বা পালিয়ে যাওয়া; নতুন বা পুরনো ভাড়াটে সংক্রান্ত তথ্য এবং প্রবাসীদের সমস্যা সংক্রান্ত অভিযোগে থানায় যে কেউ জিডি করতে পারেন।

অনলাইনে জিডি যে ভাবে করবেন

অনলাইনে জিডি করতে হলে ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশের ওয়েবসাইট www.dpm.gov.bd- এ প্রবেশ করলে Citizen Help Request নামে একটি লিংক পাওয়া যাবে। লিংকটিতে ক্লিক করে অনলাইনে জিডি সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করার তালিকা আসবে। যে ধরনের তথ্য দিয়ে জিডি করতে চান তা নির্বাচন করতে হবে। এবার তথ্য পূরণ করার খালি বক্স আসবে। তথ্যাবলী যথাযথভাবে পূরণ করে সাবমিট করলে সংশ্লিষ্ট থানায় আপনার তথ্যটি পৌঁছে যাবে। আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি শনাক্তকরণ নাম্বার পাবেন। নাম্বারটি সংগ্রহ করুন। চাইলে আপনার কোনো মতামত নিয়ে সরাসরি পুলিশের www.police.gov.bd ঠিকানায় মেইলও পাঠাতে পারবেন।

কোথায় এবং কীভাবে করবেন

যে এলাকায় ঘটনা ঘটেছে বা ঘটার আশংকা রয়েছে, সে এলাকার থানাতেই জিডি করা উচিত। নিজের এলাকার থানাকে প্রাধান্য দেয়া উচিত। তা না হলে আইনি সহায়তা নিতে ঝামেলা পোহাতে হয়। নিজের নাম এবং থানার নাম উল্লেখপূর্বক সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর আবেদন করতে হয়। যে বিষয়ে জিডি করতে চান তার নাম উল্লেখ করতে হবে। 

(যেমন- হারানোর ব্যাপারে লিখতে পারেন, হারানো সংবাদ সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন)। বিবরণ অংশে আপনাকে বিস্তারিত লিখতে হবে। যদি আপনাকে কেউ হুমকি দেয়, তার নাম, ঠিকানা, হুমকির স্থান ও তারিখ উল্লেখ করতে হবে। কিছু হারিয়ে গেলে তার বিস্তারিত বিবরণ এবং পারলে তার কোনো নমুনা, যেমন ছবি দরখাস্তের সঙ্গে সংযুক্ত করতে পারেন। সব শেষে নিচে আপনার নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর লিখতে হবে।

 

জিডির নমুনা কপি

তারিখ: ………………
বরাবর
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
………………..থানা, ঢাকা।
বিষয় : সাধারণ ডায়েরিকরণ প্রসঙ্গে।
জনাব,
সম্মানপূর্বক নিবেদন এই যে, আমি নিু স্বাক্ষরকারী: …………………………………বয়স : ……………………………………………………………..
পিতা/স্বামী : ……………………………………………….. মাতার নাম: …………………………………………………………………………………
সাং: …………………………………….. থানা: …………………………. জেলা: ……………………………………………………………………….
বর্তমানে:……………………………….. থানা:…………………………………… ঢাকা:………………………….।
এই মর্মে জানাচ্ছি যে আজ/গত …………………….. তারিখ……………. সময় …………….জায়গা থেকে আমার নিুবর্ণিত কাগজ/মালামাল হারিয়ে গেছে।
বর্ণনা : (যা হারিয়েছে)
বিষয়টি থানায় অবগতির জন্য সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করার অনুরোধ করছি।
নিবেদক,
(আবেদনকারীর স্বাক্ষর)
পুরো নাম :
ঠিকানা :
ফোন নম্বর :

Leave A Reply

Your email address will not be published.