ডলার এন্ডোর্সমেন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

0

ডলার এন্ডোর্সমেন্ট কি?

ডলার এন্ডোসমেন্ট কি? এন্ডোসমেন্ট মানে হল কোন কিছুর অনুমোদন দেয়া। অনুমোদন বা সার্টিফিকেট বলতে পারেন। আপনার ইচ্ছে করলেই ডলার কিনে ঘুরতে পারবেন না।

ডলার কিনতে হলে আপনাকে সেটা পাসপোর্ট এর এন্ডোস করে কিনতে হবে। মানে আপনি টাকা দিয়ে ডলার কিনলেন এবং সেটা কবে, কার নিকট থেকে কিনলেন তার প্রমাণ পত্র হলো অ্যান্ডোসমেন্ট

বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদিত ডিলার মানি এক্সচেঞ্জ ব্যাংক ছাড়া অন্য কারো আইনত ডলার বা অন্য কোন বৈদেশিক মুদ্রা করায় বিক্রয় অবৈধ। তাই বুঝতেই পারছেন ডলার এন্ডোসমেন্ট কেন করতে হয়।

ডলার এন্ডোসমেন্ট কেন করব।

আর আপনার মনে হতে পারে আমি ডলার এন্ডোসমেন্ট কেন করব? আপনি যখন বিদেশে ঘুরতে যাবেন তখন তো ডলার নিয়ে যেতে হবে। তার জন্য আপনার ডলার এন্ডোসমেন্ট করা খুবই প্রয়োজন।

বাংলাদেশী টাকা নিয়ে তো সব খরচ মেটাতে পারবেন না কারণ বৈধভাবে ১০ হাজার টাকার বেশি আপনি দেশ থেকে বিদেশে নিয়ে যেতে পারবেন না আবার বিদেশ থেকে নিয়ে দেশে ও ঢুকতে পারবেন না।

ডলার এন্ডোসমেন্ট কিভাবে করা হয়।

আপনার মনে প্রশ্ন এখন ডলার এন্ডোসমেন্ট কোথায় করতে হয়, তাই না? ডলার এন্ডোসমেন্ট করার জন্য আপনাকে যে কোন ব্যাংক বা মানি এক্সচেঞ্জ এর নিকট যেতে হবে।

এই দুই টাইপের প্রতিষ্ঠান থেকে কিভাবে এন্ডোস করবেন তা বিস্তৃত বলা হলো বা পাসপোর্ট এন্ড্রয়েড সবই ডলার এনরোসমেন্ট। একেক জনে একেক ডাক নামে ডাকে আর কি।

ডলার এন্ডোসমেন্ট করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

ডলার এনডোস করতে দেশভেদ ব্যাংক বা মানি এক্সচেঞ্জ ভেদে নিম্নক্ত কাগজপত্র লাগতে পারে।

  • পাসপোর্টের ডাটা পেইজের ফটোকপি।
  • ভিসার ফটোকপি যে দেশের জন্য উন্ডোজ করবেন যদি সে দেশের ভিসা লাগে থাকে।
  • এয়ার টিকিটের কপি।
  • মানি এক্সচেঞ্জের দেওয়া একটি ফরম পূরণ করতে হবে।

কত ডলার এনগেজমেন্ট করতে পারবেন?

আমরা সাধারণত বিদেশে কেন যাই? বড় মন চিকিৎসা বা ব্যবসার জন্য তাই না? তাহলে জেনে নিন কোন বিষয় কি কি লিমিট।

 বিদেশ ভ্রমনঃ-

ঘুরতে যাবেন? খুব মজা তাই না? কিন্তু কত ডলার নিতে পারবেন? এই সম্পর্কে 2020 সাল থেকে চালু হওয়া নতুন আইনে বলা আছে কোন ব্যক্তি এক বছরে সর্বোচ্চ ১২০০০ ইউএস ডলার সম্মানে বৈদেশিক মুদ্রা এনডোস করতে পারবেন।

পূর্বে এই ১২ হাজার ডলারের মধ্য একটু শর্ত ছিল। তখন আপনি সার্কভুক্ত দেশ এবং মিয়ানমার এর জন্য 5000 ইউএস ডলার বা সমূলে বৈদেশিক মুদ্র। আর সার্কভুক্ত দেশ এবং মিয়ানমারের ব্যতীত অন্যান্য দেশ এর জন্য সাত হাজার ইউএস ডলার বা সমমূল্য বৈদেশিক মুদ্রা এন্ডোস করতে পারতেন।

কিন্তু ২২০ থেকে দেশ বা অঞ্চলের এই নিয়ম নেই। এখন প্রাপ্তবয়স্ক প্রতিবছর ১২ হাজার ডলার ও ১২ বছরের কম বয়সীরা এর অর্ধেক মানে 6000 ডলার এনরোস করতে পারবেন।

চিকিৎসা জনিতঃ-

চিকিৎসার জন্য তো বেশি ডলার দরকার হয়। তাই এটি ব্যাংক থেকে করাতে হয় আর এর জন্য চিকিৎসা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখিয়ে ১০ হাজার ইউএস ডলার বা সমমূল্য বৈদেশিক মুদ্রা এনডোস করতে পারবেন।
তবে এর চেয়ে বেশি দরকার হলে ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করলেই তারা সব ব্যবস্থা করে দিবে।

টিন সার্টিফিকেট করার নিয়ম (Tin Certificate Online)

চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম

ধন্যবাদ সবাইকে পরবর্তীতে এরকম সুন্দর সুন্দর টিপস/ট্রিকস পেতে আমাদের ওয়েব পেজে সাথে থাকুন ধন্যবাদ ।

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.